সকল সংবাদ

প্রাণপ্রিয় ছেলে-মেয়ের, আনজু আনোয়ারা প্রধান শিক্ষক এর কিছু কথা

  admin2 ১৭ এপ্রিল ২০২২ , ১০:৩৭:৫০ 280

প্রাণপ্রিয় ছেলে – মেয়েরা
আজ এই চিঠি তোমাদের মনে কোন রেখাপাত করবে কী না জানি না। তবে একজন মা হিসেবে এটা আমার দায়িত্ব মনে করে লিখছি। তোমরা এখন বেশ সচেতন আর প্রগতিশীল মনে কর নিজেদের। এ ভাবনা তোমাদের নতুন পৃথিবীর সন্ধান দিয়েছে। সে জন্য আমরা আনন্দিত। তোমরা স্বাবলম্বী হয়ে আত্মমর্যাদা বাড়াতে গিয়ে অন্যের মর্যাদাকে খাটো করে দেখো না। মানুষকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে কথা বলো না কখনও। মনে রেখো কাউকে খাটো করে কথা বললেই কেউ বড় হয়ে যায় না।” ক্ষ্যাত ” বলে কাউকে উপমা দেওয়ার মাঝে সার্থকতা নেই। নিজেকে বিকশিত কর। সৌরভ ছড়িয়ে দাও বিশ্বময়। তোমাদের রাগ যেন কারোর দুঃখ দূর্দশার কারণ না হয় সেদিকে বিশেষ খেয়াল রেখো। প্রতিযোগিতার আগ্রাসনে বাবা মায়ের কাছে এমন কোন আবদার করো না যাতে তা পুরণে তাদের শরীরে মনে কষ্ট লাগে। জেনে রেখো তাদের প্রতি, পরিবারের প্রতি তোমাদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে, যা তোমরা তেমন ভাবে পালন করতে পার নি। তাই ব্যস্ততার যুগে সময় সুযোগ পেলেই দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট হবে এটাই আমার প্রত্যাশা। বয়োজ্যেষ্ঠরা বয়সের ভারে ন্যূজ হলেও অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ। তারা আগামী দেখতে পায় অনায়াসেই। তারা তোমাদের মত টগবগে ছিল। ম্যাচিং স্মার্টও হয়ত ছিল। সময়োপযোগী যুক্তিতে বুদ্ধিতে সেরা ছিল। তোমাদের আজকের বুদ্ধিমত্তা আজকের অবস্থান তৈরিতে ছিল তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম আর প্রচেষ্টার বিনিয়োগ । সে জায়গাটি আজ তোমাদের দখলে। তোমাদেরকেও ছাড়তে হবে একদিন। প্রাকৃতিক নিয়মকে শ্রদ্ধাভরে বিশ্বাস করো। গুরুজনের প্রতি বিনম্র ভক্তি -শ্রদ্ধা তোমাদের সুমহান হতে সাহায্য করবে। এর জন্য অর্থ, শ্রম, উপঢৌকন লাগবে না। মিষ্টি হাসির মধুর সম্বোধনেই তা সম্ভব । এসবের কোনটাই তোমাদের ওপরে ওঠার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না। তোমাদের আচরণ সংযত কর নিজেকে নিয়ন্ত্রণ কর তোমরা ঠকবে না। মনে রেখো পৃথিবীতে সব পরাজয়ই বিষাদের নয়। মাঝেমাঝে অপরকে জিতিয়ে দেওয়ার মাঝেও লুকায়িত থাকে অপার আনন্দ ! তোমরা সে আনন্দ উপভোগ করতে শিখো । তোমাদের পৃথিবী প্রসারিত হলে আপত্তি নেই তবে মনে রেখো আত্মশুদ্ধির দুয়ারটা যেন খোলা থাকে। আমরা তোমাদের জন্য সুন্দর ভোর আর অপার জোসনার মুগ্ধতা দিতে পারি নি। নিজেদের ইচ্ছে পূরণের হাতিয়ার ভেবেছি সারাক্ষণ। তোমরা সূর্যোদয় সূর্যাস্ত দেখো না। দেখোনা বাবা মায়ের উদয়াস্ত ঘাম স্রোতে গাঁথা স্বপ্ন আকাঙ্খা । তোমাদের কর্পোরেট রুটিনে ভোরের হাওয়ায় সূর্যটাকে দেখে নিও। নিজেদের স্বাস্থ্যের প্রতি বিশেষ নজর দিও। স্বাস্থ্যবিধির নিয়ম মেনে চললে তোমাদের শারীরিক মানসিক সুস্থতা সকলের জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে। জেনে রেখো অসুস্থ প্রতিযোগিতা তোমাকে যেমন ক্লান্ত করে দিবে তেমন নিঃস্বতার যন্ত্রণা বাড়াবে। এই সুন্দর পৃথিবীতে সকলের অধিকার রয়েছে তাই সৌভাগ্যক্রমে নিজের মালিকানা নিয়ে কখনও বড়াই করো না। অপচয় রোধে সর্বাত্মক চেষ্টা করো। বড়দের উপদেশ কে উপহাস না করে উপলব্ধি করতে চেষ্টা কর এতে তোমাদের অভিজ্ঞতার ঝুলি সমৃদ্ধ হবে। তোমরা অনেক বেশি মেধাবী, বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী এই মেধার সাথে শ্রম দিয়ে বুদ্ধিমত্তা কে শানিয়ে রেখো। হয়ত পঁচিশ বছর পরে তোমাদেরও লিখতে হতে পারে এমন কোন চিঠি।- শুভাশীস জানিয়ে মা।

আনজু আনোয়ারা ময়না।
প্রধান শিক্ষক
শাখারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়
গোপালপুর, টাঙ্গাইল।

আরও খবর:

Sponsered content