1. admin@deshsangbad24.com : admin :
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ

Reporter Name
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৫৮ জন দেখেছে

স্ত্রীসহ তিনজনকে গুলি করে হত্যার দায়ে পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যুদণ্ড

পরকীয়ার জেরে স্ত্রী-সন্তান ও যুবককে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা মামলার আসামি বরখাস্ত হওয়া পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সৌমেন রায়কে (৩৪) মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রুহুল আমীন এ রায় দেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী। সৌমেন রায় মাগুরা সদর উপজেলার কুচিয়ামোড়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের আসবা গ্রামের সুনীল রায়ের ছেলে। তিনি খুলনার ফুলতলা থানায় এএসআই হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০২১ সালের ১৩ জুন বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে কুষ্টিয়া শহরের কাস্টমস মোড় এলাকার নাজ ম্যানশন মার্কেটের বিকাশের দোকানের সামনে স্ত্রী আসমা খাতুন (২৫), আসমার ছেলে রবিন (৫) এবং আসমার পরকীয়া প্রেমিক শাকিলকে (২৮) সরকারি অস্ত্র দিয়ে গুলি করে হত্যা করেন এএসআই সৌমেন রায়। এ ঘটনায় পুলিশ তাকে ঘটনাস্থল থেকে সার্ভিস রিভলভার, গুলি ও ম্যাগাজিনসহ আটক করে। পরে সেদিন বিকেলে তাকে বরখাস্ত করা হয়।
একই দিন রাতে এএসআই সৌমেন রায়কে একমাত্র আসামি করে হত্যা মামলা করেন নিহত আসমা খাতুনের মা হাসিনা বেগম। পরদিন ১৪ জুন বিকেলে কুষ্টিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. এনামুল হকের আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন সৌমেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিশিকান্ত সরকার তার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন।

২০২২ সালের ৬ নভেম্বর হাইকোর্ট থেকে জামিন নেন সৌমেন রায়। এরপর কুষ্টিয়া আদালতে বারবার আত্মসমর্পণের দিন ধার্য থাকলেও তিনি আত্মসমর্পণ করেননি। আদালতে আত্মসমর্পণ না করায় ২০২৩ সালের ২ ফেব্রুয়ারি তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির এক বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো পলাতক সৌমেন।

মামলার বাদী হাসিনা বেগম বলেন, আমার মেয়ে, তার ছেলে রবিন ও শাকিল নামের এক যুবককে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করেছে সৌমেন। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিয়ে জেনেছি তিনি হাইকোর্ট থেকে জামিনে বেরিয়ে ভারতে পালিয়েছেন। এমন নির্মম হত্যাকাণ্ডের একমাত্র আসামিকে জামিন দেওয়ায় আমি হতাশ।

তিনি আরও বলেন, আদালত সৌমেনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ায় আমি খুশি। তবে তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হোক।

তিনজনকে গুলি করে হত্যা মামলার আসামি সৌমেন রায়ের জামিন নিয়ে লাপাত্তা হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে আইন বিশেষজ্ঞরা জানান, জামিন পাওয়ার অধিকার প্রত্যেকেরই রয়েছে। কিন্তু চাঞ্চল্যকর ট্রিপল হত্যা মামলায় স্বীকারোক্তি দেওয়ার পরও আসামির জামিন পাওয়াটা অস্বাভাবিক। এমন চাঞ্চল্যকর মামলার আসামির জামিনের বিষয়ে আরও সতর্ক হওয়া উচিত।

উল্লেখ্য, কুমারখালী থানায় দায়িত্বে থাকার সময় এএসআই সৌমেনের সাথে একটি মামলাকে কেন্দ্র করে আসমার পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সে সময় সৌমেন তার নাম মো. সুমন হোসেন রাখেন এবং সুমন নামেই মুসলিম বিধানমতে আসমাকে বিয়ে করেন। সৌমেন আসমার তৃতীয় স্বামী ছিলেন। বিয়ের পর থেকেই কুষ্টিয়ার আড়ুয়াপাড়ায় একটি ভাড়া বাসায় তারা বসবাস করছিলেন। এএসআই সৌমেন খুলনার ফুলতলা থানায় বদলি হওয়ার পর থেকেই বিকাশকর্মী শাকিলের সাথে সম্পর্কে জড়ান আসমা। এ সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি সৌমেন। সেই ক্ষোভ থেকেই প্রকাশ্যে স্ত্রী আসমা, আসমার দ্বিতীয় স্বামীর ছেলে রবিন এবং পরকীয়া প্রেমিক শাকিলকে গুলি করে হত্যা করেন সৌমেন।

সৌমেন রায় ২০১৫ সালে কনস্টেবল থেকে এএসআই পদে উন্নিত হন। পরে ২০১৬ সালে কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানায় যোগ দেন। সেখান থেকে মিরপুর থানার হালসা ক্যাম্প, বাগেরহাট থানাসহ বিভিন্ন জায়গায় কর্মরত ছিলেন। সর্বশেষ খুলনার ফুলতলা থানায় কর্মরত ছিলেন এএসআই সৌমেন রায়।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Tags

এবার প্রাথমিক ডিম-দুধ-মৌসুমী ফল খাওয়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে কংগ্রেসে ভাঙন: মমতা ঘোলা জলে 'বড় মাছ' ধরার চেষ্টা করছেন কাবুলের মসজিদ বিস্ফোরণে দুইজন নিহত কুরআনের মানুষের অধিকার কি? কোল্ড স্টোরেজ মালিকরা প্রতি কেজি আলুর ভর্তুকি চান ৯টাকা খুলনায় পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজিতে ১০ টাকা বেড়েছে জাপানিদের বাড়ির বাইরে ভ্রমণের জন্য লাগবে টিকা সনদ জিমেইল সুরক্ষিত রাখতে যা করতে হবে ঝাল বেড়েছে সবুজ মরিচে ২৪০ টাকা কেজি! তিনজন আহত দলে ফেরার পর সাকিব বোলিং এবং ফিল্ডিংয়ে শক্তিশালী ছিলেন নির্বাচন কমিশন রাজ্য সরকারকে পুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার অনুমতি পাকিস্তানি তালেবানদের শান্ত করার জন্য ইমরানের উদ্যোগ পিকআপ সিটের পিছনে ৩৮ কেজি গাঁজা পাওয়া গেছে বিএনপি চোখ হারানো নেতা শাহজাহানের সঙ্গে ফখরুলের সাক্ষাৎ বিবর্ণ মোস্তাফিজ; চেন্নাইয়ের ১৮৯ রতুরাজের সেঞ্চুরি ব্রিটিশ আমেরিকান তামাক: গবেষণা ক্ষতিকর তামাকের প্রচারের দিকে পরিচালিত করে ভিপি নূরকে 'অনৈতিক' বলার কোন প্রমাণ নেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে করোনা ইউনিটে আরও ৮ জনের মৃত্যু মাঝ আকাশে বিমান-হেলিকপ্টার সংঘর্ষে দুইজন নিহত মেয়র আতিক উচ্চশিক্ষায় গবেষণার গুরুত্বের প্রতি আহ্বান জানান যাত্রাবাড়ীতে বর্জ্য ব্যবসার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ রাজধানীর একটি বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে এক কিশোরের মৃত্যু রাজধানীর কুড়িলে ট্রেনের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন রাজধানীর বনানীর কড়াইল বস্তিতে আগুন রিং আইডির সাইফুল দুই দিনের রিমান্ডে রিয়েলমি জিটি মাস্টার হল দেশের প্রথম স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি ৫জি প্রসেসর লিবিয়া ইউরোপে যাওয়ার পথে বাংলাদেশিসহ ৫০০ অভিবাসীকে আটক শতভাগ প্রবীণ নাগরিক ভাতার আওতায় আসবেন শ্যামনগরে সবজি বাজার সুরক্ষার দাবিতে মানববন্ধন সবাইকে বাঙালিয়ানা চর্চা পুনরুজ্জীবিত করতে হবে: ইনু সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শেখ রাসেল দিবস পালিত হয়েছে সাতক্ষীরায় র‌্যাব-৬ এর অভিযানে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ী আটক সাতক্ষীরায় সবজি উৎপাদন কৌশল সম্পর্কে কৃষকদের প্রশিক্ষণ সাতক্ষীরার উপকূলীয় অঞ্চল প্রতাপনগরের মানুষ ভাসমান সেতু পেয়ে খুশি সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর আধুনিকায়ন বিষয়ে মতবিনিময় সাতক্ষীরার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান বলেন; বিচার বিভাগ অন্ধকারের বিরুদ্ধে ভোরের সূর্য সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের প্রধান ফটকে কোম্পানীর সেই সাইনবোর্ড বিক্ষুব্ধ ছাত্রদের প্রতিবাদে অপসারণ সাতক্ষীরায় আ.লীগের বর্ধিত সভায় চেয়ারম্যান প্রার্থীরা তালিকা নিয়ে হট্টগোল! সাতক্ষীরায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২ সাতক্ষীরায় বিজিবি'র অভিযানে ২৫ পিস স্বর্ণের গহনা আটক সাতক্ষীরায় যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে মহান বিজয় দিবস সাতক্ষীরায় র‌্যাব-৬ এর অভিযানে সেনাবাহিনীর এক ভূয়া সদস্য আটক সাতক্ষীরায় র‌্যাবের অভিযানে বাঘের চামড়া উদ্ধার ৪০ দিন জামাতে প্রার্থনা করলে কি লাভ?
© All rights reserved © 2023 দেশ সংবাদ ২৪
প্রযুক্তি সহায়তায় রিহোস্ট বিডি